ডোমেইন নেম কি? – Best Domain and Web Hosting Company in Bangladesh
Khilkhet, Nikunja-2
Dhaka-1229
01828 363436
01887 441288
info@nhostbd.com
www.nhostbd.com

ডোমেইন নেম কি?

ডোমেইন নেম কি?

সহজ ভাষায় বলতে গেলে ডোমেইন নেম হচ্ছে একটা ওয়েবসাইটের নাম। facebook.com, google.com এগুলো একেকটা ডোমেইন নেম বা ওয়েবসাইট। একটি ডোমেইন নেম (DNS = Domain Name Server) এর নিয়ম এবং পদ্ধতি দ্বারা গঠিত হয়। DNS- এ নিবন্ধিত কোনো নাম একটি ডোমেইন নেম। প্রতিটি ডোমেইন মূলত এক একটি আইপি বা কিছু সংখ্যা যেমন: facebook.com এর আইপি 157.240.1.35। যেহেতু আইপি বা সংখ্যা সমূহ সহজে সকলের মনে থাকবে না, সেই জন্য আইপির পরিবর্তে ডোমেইন নেম দিয়ে আমরা তা সহজে মনে রাখতে পারি। যেমনঃ www.nhostbd.com এখানে www হচ্ছে world wide web, nhostbd হচ্ছে ডোমেইন নেম এবং .com হচ্ছে এক্সটেনশন। উইকিপিডিয়ার তথ্য অনুসারে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ৩৩০.৬ মিলিয়ন ডোমেইন নিবন্ধিত হয়েছে।

 

ডোমেইন নেম সিস্টেম এর ইতিহাসঃ

DNS আবিষ্কার হয় ১৯৮৩ সালে, টিসিপি/ আইপি চালু হবার কিছু দিন পরেই। ১৯৮৩ সালে পল মকাপেট্রিস, জন পোস্টেলের অনুরোধে ডোমেইন নেম সিস্টেম উদ্ভাবন করেন এবং এর বাস্তবায়ন ঘটান।ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়া বার্কলে’র চারজন ছাত্র যথাক্রমে ডগলাস টেরি, মার্ক পেইন্টার, ডেভিড রিগ্‌ল ও সংনিয়ান ঝুও ১৯৮৪ সালে Unix সংস্করণ লেখেন। যা র‌্যালফ ক্যাম্পবেল দেখাশোনা করতেন। ১৯৮৫ সালে DEC কেভিন ডানলপ DNS নতুন করে সংস্কার করেন এবং নাম রাখেন বাইন্ড। এরপর থেকে বাইন্ডের দেখাশোনা করতেন মাইক ক্যারেলস, ফিল আলকুইস্ট ও পল ভিক্সি। এরপর ১৯৯০ সালের শুরুর দিকে Windows NT সংস্করণে বাইন্ড দেয়া হয়। DNS এর ফলেই কোন প্রতিষ্ঠান নেটওয়ার্কের রাউটিং কি রকম হবে সেই ব্যাপারে চিন্তা না করেও ডোমেইন নেম দিতে পারবে।

 

ডোমেইন নেম নিবন্ধন ইতিহাসঃ

.com TLD ১৫ মার্চ, ১৯৮৫ সালে Symbolics Inc প্রতিষ্ঠানকে symbolics.com এই নামে ডোমেইনটি নিবন্ধন দেয় Computer Systems Firm in Cambridge, Massachusetts। এরপর ১৯৯২ সাল পর্যন্ত মোট ১৫,০০০ ডোমেইন নিবন্ধিত হয়েছিল। ২০১৬ এর প্রথম তিন মাসে ২৯ কোটি ৪০ লক্ষ ডোমেইন নেম নিবন্ধিত হয়েছে যার বেশিরভাগ com TLD। ২১ শে ডিসেম্বর ২০১৪ পর্যন্ত মোট ডোমেইন সংখ্যা ছিল ১১৫.৬ মিলিয়ন। এর মধ্যে ১১.৯ মিলিয়ন ব্যবসা-বাণিজ্য এবং ই-কমার্স সাইট, ৪.৩ মিলিয়ন বিনোদন সাইট, ৩.১ মিলিয়ন অর্থসংস্থান সম্পর্কিত সাইট এবং ১.৮ মিলিয়ন ক্রীড়া সাইট। জুলাই ২০১২ পর্যন্ত .com TLD ডোমেইন এর রেজিস্ট্রেশন সংখ্যা মোট ccTLDs এর চেয়ে বেশি। [সূত্রঃ উইকিপিডিয়া]

 

বিভিন্ন স্তরের ডোমেইন এর ধরনঃ

TLD = Top Level Domain: যেমনঃ .com .org .net .info ইত্যাদি। এগুলো হচ্ছে টপ লেভেল ডোমেইন বা প্রথম স্তরের ডোমেইন।

gTLD = Generic Top Level Domain: জেনেরিক শীর্ষ-স্তরের ডোমেইন গুলোর মধ্যে যেগুলো কোন দেশের সাথে সংশ্লিষ্ট না তাদেরকে gTLD বলে। .com, .org, .net, .info ইত্যাদি কিছু সংখ্যক Generic Top Level Domain এর উদাহরন।

ccTLD = Country Code Top Level Domain: প্রথম স্তরের ডোমেইন গুলো স্থানিয় নেটওয়ার্ক এ ব্যবহার করা জন্য বিশেষ অনুমতি নিয়ে থাকে। একটি দেশের নিজস্ব যেই ডোমেইনগুলো থাকে সেগুলোই হচ্ছে Country Code Top Level Domain । যেমন .com.bd (Bangladesh), .us (America), .uk (United Kingdom), .in (India) ইত্যাদি।

SLD = Sub Level Domain: কোন ডোমেইন এর অধীনস্ত ডোমেইন গুলোকেই Sub Level Domain বলে। যেমনঃ www.client.nhostbd.com এখানে client. হচ্ছে Sub Level Domain । একটা Domain এ একাধিক Sub Level Domain থাকতে পারে। যেমনঃ আমাদের ডোমেইন নেম হচ্ছে www.nhostbd.com এবং সাব ডোমেইন হচ্ছে www.client.nhostbd.com

Free Domain: যে ডোমেইন গুলো সাধারনত কিনতে হয়না সেগুলোই ফ্রি ডোমেইন। ওয়েব টু করার জন্য ফ্রি ডোমেইন অত্যন্ত জনপ্রিয়। যেমনঃ  .blogspot.com .tk, wordpress.com, weebly.com এগুলোতে ফ্রি ডোমেইন নিতে পারবেন। ফ্রি ডোমেইন গুলোর সাথে একটা নির্দিষ্ট পরিমান 

 

ডোমেইন গঠনঃ

আমরা পূর্বেই জেনেছি ডোমেইন এর কয়েকটি অংশ থাকে। একটি অংশে নাম থাকবে ইউনিক যা আর কেউ নিতে পারবে না অন্যটি ঐ ডোমেইন এর এক্সটেনশন। যেমনঃ www.nhostbd.com এখানে nhostbd হল ইউনিক ডোমেইন নাম এবং .com হল ডোমেইন এক্সটেনশন। ওয়েবসাইটের ধরণ অনুযায়ী এক্সটেনশন সিলেক্ট করা হয়। এবার আমরা এমন কিছু এক্সটেনশান জেনে নিব।

  • .com : পৃথিবীতে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত এক্সটেনশন। কোম্পানি, ই-কমার্স, ব্লগ সহ সকল প্রকার ওয়েবসাইটের জন্য এই এক্সটেনশন খুব জনপ্রিয়।
  • .net : এক বা একাধিক নেটওয়ার্কের জন্য ব্যবহৃত।
  • .org : কোন  অলাভজনক/ ধর্মীয়/ সংগঠন এর ওয়েবসাইট এর জন্য।
  • .info : ব্যক্তিগত অথবা তথ্যভিক্তিক ওয়েবসাইটের জন্য ব্যবহৃত।
  • .me : সাধারণত ব্যক্তিগত পোর্টফলিও ওয়েবসাইটের জন্য ব্যবহার করা হয়।
  • .edu.bd : স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা ইত্যাদি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য এই ডোমেইন।
  • .ac.bd : বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য ব্যবহৃত হয়।
  • .gov.bd : সরকারি প্রতিষ্ঠানের জন্য।
  • .mil : মিলিটারি ফোর্স বা সামরিক বাহিনী ব্যবহার করে।
  • .tv.bd : টেলিভিশন চ্যানেল এর জন্য।
  • .বাংলা : বাংলা ভাষাভাষী লোকজনদের জন্য।

Domain Name এ সর্বনিম্ন ৩ টি  আর সর্বোচ্চ ৬৩ টি অক্ষর বা বর্ণ থাকতে পারবে। শুধুমাত্র ইংরেজি অক্ষর A-Z, 0-9 পর্যন্ত সংখ্যা আর [ – ] (Hyphen) Domain Name এর মধ্যে ব্যাবহার করা যাবে।

 

 

বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন্স কোম্পানি লিমিটেড (বিটিসিএল) .com.bd এবং  .বাংলা এক্সটেনশন ডোমেইনটি বিক্রি করে থাকে। অথবা যে কোন সাহায্য প্রয়োজন হলে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন।

 

ডোমেইন নেম পুনরায় বিক্রয়ঃ

বিষয়টা সহজ ভাবে বলি। ছবিতে দেখা যাচ্ছে January.com নিবন্ধিত আছে। কিন্তু আপনি গুগল করলে দেখবেন এই নামে কোন ওয়েবসাইট নেই। অর্থাৎ কেউ ডোমেইনটা কিনে রেখেছে কিন্তু ওয়েবসাইট তৈরি করেনি এখনও। যে কিনে রেখেছে ডোমেইনটি, সে মূলত অধিক ধামে বিক্রি করার জন্য ডোমেইনটি পূর্বে কিনে রেখেছে । January.com একটি জনপ্রিয় নাম এবং এটার বর্তমান মূল্য ১,৮০,০০০ ডলার। অনলাইনে জনপ্রিয় ডোমেইন নেম কিনে রাখা এবং পুনরায় বেশি দামে বিক্রি করা একটি লাভজনক ব্যবসা। আমাদের দেশের অনেক ফ্রিল্যান্সার এই কাজটি করে থাকেন।

 

বিভ্রান্তিকর ডোমেইন নেমঃ

ডোমেইন নেম নির্ধারন করার জন্য বানান ভুল বা খারাপ শব্দ কখনই সমস্যা নয়। যে কেউ, যে কোন নাম ডোমেইন নেম হিসেবে নিতে পারবেন। কিন্তু এমন নাম রাখা ঠিক না যা ভুল ব্যাখ্যা করে।উদাহরণস্বরূপ: whorepresents.com এই ডোমেইনটি নেয়া হয় শিল্পী ও এজেন্টদের ডাটাবেস নিয়ে কাজ করার জন্য। Whore Presents  এটার অর্থ এখন দাঁড়াচ্ছে- “বে** উপহার” এবং এটাই ভুলভাবে পড়তে পারে। একইভাবে, একটি থেরাপিস্ট নেটওয়ার্ক নামকরণ করা হয় therapistfinder.com। এই পরিস্থিতিতে, ডোমেইন নেমে হাইফেন ব্যবহার করে সঠিক অর্থটি ব্যাখ্যা করা যেতে পারে। উদাহরণস্বরূপ: Experts Exchange একটি প্রোগ্রামারদের আলোচনার ওয়েবসাইট। তাদের পূর্বে নাম ছিল expertsexchange.com। যখন দেখলো লোকজন পড়তে শুরু করেছে expert sex change.  শেষ পর্যন্ত তারা experts-exchange.com নাম পরিবর্তন করেছেন হাইপেন ব্যবহার করে।

 

ডোমেইন নেম নির্বাচনঃ

  • সহজ, সুন্দর এবং অর্থবহ নাম নির্বাচন করতে হবে, যাতে করে ভিজিটর সহজেই নাম মনে রাখতে পারে।
  • ওয়েবসাইটের বিষয়বস্তুর সাথে মিল রেখে নাম ঠিক করুন।
  • সংক্ষিপ্ত বা ছোট ডোমেইন নেম দেখতে সুন্দর, মনে রাখাও সহজ, যেমন: Facebook.com, Apple.com ও Nokia.com ইত্যাদি।
  • প্রতিষ্ঠিত ওয়েবসাইট এর অনুকরণে নাম দেওয়া থেকে বিরত থাকুন। যেমনঃ Facebookbd.com, Googlebd.com, Sonybd.com ইত্যাদি।
  • ৪ বর্ণ থেকে ১১ বর্ণের মধ্যে নাম রাখার চেষ্টা করুন।

কোথা থেকে ডোমেইন কিনবেনঃ

ডোমেইন কেনার পূর্বে যে বিষয় গুলো ভালো ভাবে জেনে নিবেন-

  • ডোমেইন কন্ট্রোল প্যানেল দিচ্ছে কিনা
  • ডোমেইন রেজিস্ট্রশন ফি
  • প্রতিষ্ঠানের সামগ্রিক আবস্থা
  • পরবর্তি বছরের রিনিউ ফি কত

উপরোক্ত বিষয় গুলো আপনার চাহিদা মোতাবেক হলে যে কোন দেশি বিদেশী প্রতিষ্ঠান থেকে Domain ক্রয় করতে পারেন।

আমাদের থেকে কিনলে Home বাটনে ক্লিক করে আপনার পছন্দের হোস্টিং প্ল্যানটি বেছে নিন এবং সাথে ডোমেইন অর্ডার করুন। কারন আমরা আপনাকে দিব ডোমেইন এর পুরো কন্ট্রোল। আপনি ইচ্ছে করলে পেপাল (PayPal) / বিকাশ  (Bkash) / রকেট (Rocket) এর মাধ্যমে পেইমেন্ট করতে পারবেন। অনেকে কম দামে (৪০০-৫০০) টাকায় ডোমেইন বিক্রয় করার কথা বলে। শস্তার তিন অবস্থা তখন শুধু মাথায় এই প্রবাদ বাক্যটা মনে রাখবেন। শস্তায় ডোমেইন কিনা থেকে দূরে থাকুন।  কারণ পরের বছর আবার রিনিউ করতে গেলে দিগুন বা তার চেয়েও বেশি টাকা কেটে নিবে।

 

হোস্টিংঃ 

ডোমেইনকে যদি সফটওয়্যার ধরি হোস্টিং হচ্ছে হার্ডওয়্যার। ডোমেইন আমরা লিখতে হয় কোন সার্চ ইঞ্জিন এর Address Bar (এড্রেস বারে) তাহলে বুঝা যাচ্ছে এটা এড্রেস বা ঠিকানার কাজ করে। যেমন আমাদের অফিস খুঁজে বের করতে হলে আপনার অবশ্যই আমাদের অফিসের এড্রেস বা ঠিকনা জানতে হবে। আমাদের অফিসের ঠিকানা যেমন পৃথিবীতে মাত্র একটাই নামে পরিচিত। তেমনি একই ভাবে এই ডোমেইন নেম গুলোর ঠিকানাও একটি নির্দিষ্ট ওয়েবসাইটকে নির্দেশ করে। তাহলে সহজ কথায় বলা যায় আমাদের অফিস এর বিল্ডিং টা হচ্ছে হোস্টিং। হোস্টিং সম্পর্কে বিসতারিত পড়তে এখানে ক্লিক করুন।

একটা ওয়েবসাইট করতে গেলে ডোমেইন এবং হোস্টিং বাধ্যতা মূলক তা এতক্ষনে নিশ্চই বুঝতে পেরেছেন। ব্লগটি পড়ে আপনার ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে । কারণ বাংলাদেশের নতুন প্রজন্ম ডোমেইন হোস্টিং সম্পর্কে এখনও বিশেষ ভাবে অবগত নয়।


Leave a Reply